একটি অতি ভয়ঙ্কর কিন্তু ফালতু ভৌতিক গল্প – এ্যালার্ম বাজে সাত সকালে

কীর্তিনাশা এর ছবি
লিখেছেন কীর্তিনাশা (তারিখ: বিষ্যুদ, ০৭/১০/২০২১ - ২:৩৫অপরাহ্ন)
ক্যাটেগরি:

খুব সকালে লাবনীর ঘুম ভাঙল এ্যালার্মের শব্দে। মোবাইলের এ্যালার্ম একটানা বেজেই চলেছে। আওয়াজটা বড় অদ্ভুত। একটা বাচ্চা ছেলে ঠাণ্ডা-কাশিতে ভাঙা খনখনে গলায় শুধু বলে যাচ্ছে – ‘মা'মনি সকাল হয়েছে উঠে পড়। মা'মনি সকাল হয়েছে উঠে পড়।’ বিরক্তি নিয়ে চোখ মেলতে মেলতে লাবনী ভাবে ছোট্ট খোকন মোবাইলে আবার এটা কখন রেকর্ড করলো? আর এ্যালার্মই বা কখন সেট করল?

চোখ মেলে লাবনী দেখে ঘর অন্ধকার। এখনো আলো ফোটেনি। মোবাইল বেজেই চলেছে – ‘মা'মনি সকাল হয়েছে উঠে পড়।’ হঠাৎ লাবনীর মেরুদণ্ড বেয়ে ভয়ের এক শীতল স্রোত মাথা থেকে পায়ের দিকে বয়ে গেল। তার মনে পড়ল – মোবাইল তো নেই। মোবাইল তো সে দু’দিন আগে রাগে আছাড় মেরে ভেঙে ফেলেছে। ঘরে তো কোন মোবাইল নেই। তাহলে কোত্থেকে আসছে এই শব্দ ?

খোকনের কি তবে ঘুম ভেঙে গেল ? পাশের কক্ষ থেকে ডাকছে তাকে ? লাবনীর শরীরে আবারো ভয়ের স্রোত বয়ে গেল। মনে পড়ল – তার তো কোন সন্তান নেই ! তবে কে ডাকছে এভাবে খনখনে কণ্ঠে !

তাহলে কি তার ননদের ছোট ছেলেটা ? ননদ কি গতকাল বাসায় এসেছে ছেলেকে নিয়ে ? লাবনীর শরীরে আরও তীব্র ভয়ের স্রোত বয়ে গেল। তার মনে পড়ল – সে তো এখনো বিয়েই করেনি। ননদ আসবে কোত্থেকে ?

কণ্ঠ বেজেই চলেছে। লাবনী তখন ভয়ে থর থর করে কাঁপছে। তার দৃষ্টি চলে গেল জানালার দিকে। আবছা অন্ধকারে ওখানে একটা অবয়ব দেখা যাচ্ছে। একটা বাচ্চা ছেলে। জানালার গ্রিলের ভেতর দিয়ে ছোট্ট শাদা মেটে হাত বারিয়ে তার দিকে নাড়ছে। কালো চোখে তার কেমন ঘোলাটে দৃষ্টি। মুখে হাসি তবে সে হাসি বড় ভয়ঙ্কর। হাত নাড়ছে আর বলছে - মা'মনি সকাল হয়েছে উঠে পড়। মা'মনি সকাল হয়েছে উঠে পড়।

তীব্র ভয়ে অজ্ঞান হতে হতে লাবনীর মনে হল – ধুর, এ ঘরে তো কোন জানালাই নেই !


মন্তব্য

হিমু এর ছবি

হো হো হো হো হো হো

এমন হড়ুড়ে গপ্পো আরও আসুক।

কীর্তিনাশা এর ছবি

অনেক ধন্যবাদ দেঁতো হাসি
চেষ্টা চলবে।

-------------------------------
আকালের স্রোতে ভেসে চলি নিশাচর।

নতুন মন্তব্য করুন

এই ঘরটির বিষয়বস্তু গোপন রাখা হবে এবং জনসমক্ষে প্রকাশ করা হবে না।